01 24 17

মঙ্গলবার, ২৪শে জানুয়ারী, ২০১৭ ইং | ১১ই মাঘ, ১৪২৩ বঙ্গাব্দ (শীতকাল) | ২৫শে রবিউস-সানি, ১৪৩৮ হিজরী

Home - আন্তর্জাতিক - ইসরায়েলি নীতি ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠনে অন্তরায়: ওবামা

ইসরায়েলি নীতি ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠনে অন্তরায়: ওবামা

দখলকৃত ভূখণ্ডে ইসরায়েলি বসতি সম্প্রসারণে দেশটির প্রধানমন্ত্রীর নীতি ভবিষ্যতে অঞ্চলটিতে দ্বিরাষ্ট্রীয় সমাধানকে অসম্ভব করে তুলছে বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

মঙ্গলবার ইসরায়েলি একটি টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক সাক্ষাৎকারে তিনি এই কথা বলেন।

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সংক্ষিপ্ত নাম উল্লেখ করে ওবামা বলেন, “বিবি (নেতানিয়াহু) সবসময় বলে থাকেন, তিনি দ্বিরাষ্ট্রীয় সমাধানে বিশ্বাস করেন। অথচ এখনো পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে তার কার্যকলাপে এটাই প্রতীয়মান হচ্ছে যে, বসতি সম্প্রসারণের ব্যাপারে চাপ দেওয়া হলে তিনি দ্বিরাষ্ট্রীয় সমাধানের গুরুত্ব অগ্রাহ্য করে তাতেই অনুমোদন দেবেন।”

ইসরায়েলের দখলে থাকা পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেমে বর্তমান প্রায় ৫ লাখ ৭০ হাজার ইসরায়েলি নাগরিক বসবাস করছেন। তাদের পাশাপাশি ২৬ লাখ ফিলিস্তিনিও বসবাস করছেন।

১৯৬৭ সালে মধ্যপ্রাচ্যের যুদ্ধে পশ্চিম তীর ও জেরুজালেম দখল করে নেয় ইসরায়েল। পরবর্তী সময়ে পূর্ব জেরুজালেমেও দখল সম্প্রসারণ করে ইহুদি রাষ্ট্রটি। তবে তা আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পায়নি।

ওবামা বলেন, গেল কয়েকবছরে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি ‘অসংখ্য সময়’ ব্যক্তিগতভাবে নেতানিয়াহুর প্রতি বসতি স্থাপন কর্মকাণ্ড বন্ধের অনুরোধ জানিয়েছেন। কিন্তু তার আবেদন বরাবরই প্রত্যাখ্যাত হয়েছে।

চ্যানেল টুকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ওবামা বলেন, “এই ক্ষেত্রে ক্রমবর্ধমান যে বিষয়টি আপনি দেখছেন তার ফলে পরিস্থিতির সমাধান অসম্ভব হয়ে উঠছে। অন্ততপক্ষে অত্যন্ত কঠিন হয়ে উঠছে। এই ধারা অব্যাহত থাকলে তা কার্যকর ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠন অসম্ভব করে তুলবে।”

অবশ্য ইসরায়েল যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছ থেকে বেশি অনুকূল সমর্থন পাওয়ার আশা করছে।

২০ জানুয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ওবামার মেয়াদ শেষ হবে। নয়া প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য