12 18 17

সোমবার, ১৮ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং | ৪ঠা পৌষ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ (শীতকাল) | ২৯শে রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

Home - দিনাজপুর - আজ বিরামপুর, বোচাগঞ্জ, বীরগঞ্জ, নবাবগঞ্জ মুক্ত দিবস পালিত

আজ বিরামপুর, বোচাগঞ্জ, বীরগঞ্জ, নবাবগঞ্জ মুক্ত দিবস পালিত

বিরামপুরঃ র‌্যালি, আলোচনা সভা ও মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বুধবার (৬ ডিসেম্বর) বিরামপুর মুক্ত দিবস পালন করা হয়েছে। ১৯৭১ সালের ৬ ডিসেম্বর দিনাজপুরের বিরামপুর থানা পাকিস্তানী হানামুক্ত হয়েছিল। সকালে মুক্তিযোদ্ধা, প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও সূধিদের নিয়ে বিজয় র‌্যালির পর উপজেলা কৃষি সেন্টারে সাংবাদিক মাহমুদুল হক মানিকের সঞ্চালনায় আলোচনা সভা ও স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান হয়েছে।

সাবেক উপজেলা কমান্ডার লুৎফর রহমান শাহ’র সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদুর রহমান, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার এ.এস.এম হাফিজুর রহমান রিয়েল, ওসি মোখলেছুর রহমান, সমাজ সেবা কর্মকর্তা ময়নুল হক, পৌরসভার প্যানেল মেয়র শওকত আলী, স্বাধীনতা পরবর্তী প্রথম বিরামপুর ইউ.পি চেয়ারম্যান আঃ আজিজ সরকার, ইত্তেফাক সংবাদদাতা নজরুল ইসলাম, প্রেসক্লাবের সভাপতি মোবারক আলী, সম্পাদক মোরশেদ মানিক, রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মশিহুর রহমান, সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের সভাপতি আকরাম হোসেন, থানা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক কমর সেলিম প্রমূখ।

বোচাগঞ্জঃ ৬ ডিসেম্বর বুধবার সেতাবগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে বোচাগঞ্জ উপজেলা পাকহানাদার মুক্ত দিবস উদযাপন কমিটির আহবায়ক মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জাফরুল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন উপজেলা চেয়ারম্যান ফরহাদ হাসান চৌধুরী ইগলু, সেতাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোঃ আব্দুস সবুর, ইউএনও মোঃ সারওয়ার মোর্শেদ, মুক্তিযোদ্ধা যথাক্রমে কছিম উদ্দীন, আফজাল হোসেন লাবু প্রমুখ। উল্লে¬খ্য যে, ১৯৭১ সালের এই দিনে বোচাগঞ্জের ১১৬ জন মুক্তিযোদ্ধা পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর সাথে প্রানপণ লড়াই চালিয়ে বোচাগঞ্জকে হানাদার মুক্ত করেন। এতে ধনতলা গ্রামের আব্দুর বারেক ও এনামুল হক, কাকদুয়ার গ্রামের চিনিরাম দেবশর্মা, বিহাগাঁও গ্রামের কাশেম আলী, রনগাঁও ইউনিয়নের ধনঞ্জয়পুর গ্রামের গুলিয়া বাংরু, বনকোট চুনিয়াপাড়া গ্রামের বের্য্যমোহন রায় সহ সর্বমোট ১৩ জন মানুষ শহীদ হন। ২য় বার আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর ২০০৯ সাল থেকে বোচাগঞ্জে দিবসটি পালন হয়ে আসছে।

বীরগঞ্জঃ ৬ ডিসেম্বর বুধবার সকালে বীরগঞ্জ মুক্ত দিবস উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল এর আয়োজনে উপজেলা অডিটরিয়ামে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল । উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আলম হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভুমি) বিরোদা রানী রায়, উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার কালী পদ রায়, চক্ষু বিশেষজ্ঞ মুক্তিযোদ্ধা ডা. শহীদুল ইসলাম খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য মো. নুর ইসলাম নুর। শুরুতে দিবসটি যথাযথ মর্যদায় উদযাপনের লক্ষ্যে উপজেলা চত্বরে অবস্থিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন, তাজমহল মোড়ে শহীদ বুধারু স্মৃতিস্তম্ভে ও বীরগঞ্জ প্রেসক্লাবের পাশে শহীদ মহসীন আলী’র কবরে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপালসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। পরে উপজেলা চত্বর থেকে এক বিশাল আনন্দ শোভাযাত্রা উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে।

আনন্দ শোভাযাত্রায় বীরগঞ্জের মুক্তিযোদ্ধা, রাজনৈতিক, সামাজিক-পেশাজীবি, সাংবাদিক সংগঠন, স্কুল-কলেজ ও মাদ্রসাসহ সকল শ্রেণী-পেশার মানুষ অংশ গ্রহন করেন। উল্লেখ্য, ১৯৭১ইং সালে এই দিনে মুক্তিযোদ্ধা ও ভারতীয় মিত্র বাহিনীর আক্রমনে ঢাকা-পঞ্চগড় মহাসড়কের ভাতগাঁও ব্রীজে বাংকারে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী অবস্থান নেয়। যৌথ বাহিনীর টেংক-কামান-মেশিনগান ও বিমান হামলা থেকে নিজেদের বাঁচতে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী পালিয়ে যায়। এদিকে একই দিনে কাহারোল উপজেলা মুক্ত দিবস উপলক্ষ্যে একই ধরনের কর্মসূচী পালন করা হয়। আলোচনা সভা শেষে এক মনোজ্ঞ সাস্কিৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিবসটির কর্মসূচী শেষ করা হয়।

নবাবগঞ্জঃ বুধবার ৬ ডিসেম্বর দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে বিভিন্ন কর্মসুচীর মধ্য দিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় নবাবগঞ্জ মুক্ত দিবস পালিত হয়েছে। টানা কয়েক দিনের সম্মুখ যুদ্ধের পর ১৯৭১ সালের ৬ ডিসেম্বরে নবাবগঞ্জ পাকহানাদার বাহিনীর কবল হতে নবাবগঞ্জ উপজেলা মুক্ত হয়। দিবসের কর্মসুচী হিসেবে নবাবগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বেলা ১১টায় এক বর্নাঢ্য বিজয় র‌্যালি উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। র‌্যালি শেষে উপজেলা পরিষদ চত্বরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ডাঃ মোশারফ হোসেন, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. জিয়াউর রহমান মানিক, মুক্তিযোদ্ধা মো. ইউনুছ আলী তালুকদার, মো. ইখলাছুর রহমান, মো. তোফাজ্জল হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। এ ছাড়াও দিবস উপলক্ষে মাদকবিরোধী ম্যারাথন অনুষ্ঠিত হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য