12 10 18

সোমবার, ১০ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং | ২৬শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২রা রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

Home - রংপুর বিভাগ - গৃহহীন পরিবার গুলো প্রধানমন্ত্রীর উপহার বসত-বাড়ি পাচ্ছেন

গৃহহীন পরিবার গুলো প্রধানমন্ত্রীর উপহার বসত-বাড়ি পাচ্ছেন

আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট থেকে: দেশে ২ দফা বন্যা ও নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্থ ও গৃহহীন পরিবার গুলো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসাবে বসত বাড়ি পাচ্ছেন। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের আওতায় লালমনিরহাট সহ দেশের ৩৫ টি জেলার সাড়ে ১৭ হাজার ক্ষতিগ্রস্থ ও গৃহহীন পরিবারকে এ কর্মসুচীর আওতায় সুবিধাভোগী হিসেবে আনা হবে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ অধিদপ্তরের উপ-সচিব মোহাম্মদ হোসেন স্বাক্ষরিত এক পত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

App DinajpurNews Gif

ইতোমধ্যে সুবিধাভোগীদের তালিকা প্রনয়ণের কাজ চলছে। জানা গেছে, এ বারের ২ দফা বন্যা ও নদী ভাঙ্গণে দেশের ৩৫ টি জেলা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। ওই জেলা গুলোর বেশ কিছু পরিবার গৃহহীন হয়ে পড়েছে। সে কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে কেউ গৃহহীন থাকবে না এই কর্মসুচীর আওতায় তাদের বসত বাড়ি নিমার্ণ করে দেয়ার জন্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়কে নির্দেশদিয়েছেন।

ওই নির্দেশের আলোকে লালমনিরহাট, দিনাজপুর, কুড়িগ্রাম, ঠাকুরগাঁও, নীলফামারী, পঞ্চগড়, গাইবান্ধা, বগুড়া, রংপুর, সিরাজগঞ্জ, জামালপুর, নওগাঁ, ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ, শরীয়তপুর, রাজবাড়ী, মানিকগঞ্জ, মাদারীপুর, টাংগাইল, নেত্রকোনা, কিশোরগঞ্জ, শেরপুর, মুন্সিগঞ্জ, ময়মনসিংহ, সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার, সিলেট, রাজশাহী, নাটোর, চাঁদপুর, জয়পুরহাট, ঢাকা, পাবনা, চাপাইনবাবগঞ্জ ও যশোর জেলাকে এ নিয়ে একটি কর্মসুচী গ্রহন করা হয়েছে।

এ কর্মসুচীর আলোকে প্রতিটি জেলায় কমপক্ষ ৫ শত পরিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসাবে বসত বাড়ি পাবেন। ওই তালিকায় গৃহহীন মুক্তিযোদ্ধা, গৃহহীন বিধাবা, প্রতিবন্ধী ও বয়স্ক কৃষকদের অন্তরভূক্ত করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ প্রসঙ্গে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ অধিদপ্তরের উপ-সচিব (ত্রাক) মোহাম্মদ হোসেন দেশের বাইরে অবস্থান কারায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

লালমনিরহাট জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তার অতিরিক্ত দায়িত্বে সহকারী কমিশনার সুজাউদ্দৌলা জানান, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে সমম্বয় করে সুবিধাভোগী ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলোর তালিকা তৈরীর কাজ চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য