08 21 18

মঙ্গলবার, ২১শে আগস্ট, ২০১৮ ইং | ৬ই ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ৯ই জিলহজ্জ, ১৪৩৯ হিজরী

Home - জেনে রাখুন - দিনে ৩টি খেজুর খেলে কী হয়?

দিনে ৩টি খেজুর খেলে কী হয়?

খেজুর খেতে ভালোবাসেন না এমন মানুষ খুব কমই আছেন। শুধু স্বাদ ও পুষ্টিগুণ নয়, বরং রোগ নিরাময়ের জন্যও খেজুরের জুড়ি মেলা ভার। এই খাবারে প্রচুর পরিমাণে স্বাস্থ্যকর তন্তু, মিনারেল এবং ভিটামিন রয়েছে।

এই উপাদানগুলো শুধু কোষ্ঠকাঠিন্য রোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে না, একই সঙ্গে ডায়রিয়া এবং অন্ত্রের নানা সমস্যার সমাধানেও সাহায্য করে।

প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় তিনটি খেজুর রাখলে শরীরের কিছু পরিবর্তন ঘটে। স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট ডেভিডউলফ ডটকম তুলে ধরেছে সেই পরিবর্তনগুলো।

হজমশক্তি ভালো হয়

খেজুরে দ্রবণীয় তন্তু রয়েছে, যা হজমশক্তির উন্নতি ঘটিয়ে স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সাহায্য করে। একই সঙ্গে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা থেকে মুক্তি দেয় খেজুর। এতে পটাশিয়াম থাকায় তা বদহজম এবং ডায়রিয়া থেকেও রক্ষা করে। আসলে খেজুর আমাদের পাকস্থলীর মধ্যকার ভালো ব্যাকটেরিয়াগুলোকে শক্তির জোগান দেয় বলেই এমনটি হয়ে থাকে।

রক্তস্বল্পতা রোধ

বেশিরভাগ মানুষই রক্তস্বল্পতায় ভোগেন। এর চিকিৎসায় আয়রনের একটি চমৎকার উৎস হতে পারে খেজুর। ক্লান্তি দূর করতেও ভূমিকা রাখে খেজুর।

হাড়, রক্ত এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি

খেজুরে ম্যাগনেশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ এবং সেলেনিয়াম রয়েছে। এদের মধ্যে সেলেনিয়াম ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে। অন্য উপাদানগুলো হাড়কে মজবুত এবং রক্ত ভালো রাখতে সাহায্য করে।

শক্তি বাড়ায়

খেজুরে প্রাকৃতিক চিনি বিশেষ করে গ্লুকোজ, সুক্রোজ, ফ্রুক্টোজ বিদ্যমান রয়েছে। এই উপাদানগুলো শক্তি বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। কাজেই শক্তি বাড়াতে বিকেলের নাস্তায় খেজুর খেতেই পারেন।

হার্ট ভালো রাখে

কোলেস্টরল হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়াতে সাহায্য করে। খেজুরে পটাশিয়াম বিদ্যমান থাকায় তা খারাপ কোলেস্টরলের পরিমাণ কমিয়ে আনে। এর ফলে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকিও কমে যায়। কাজেই স্বাস্থ্য সুরক্ষায় প্রতিদিনের ডায়েটে তিনটি খেজুর রাখতেই পারেন।