06 24 18

রবিবার, ২৪শে জুন, ২০১৮ ইং | ১০ই আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ (বসন্তকাল) | ৯ই শাওয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

Home - দিনাজপুর - বিরলে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার ॥ হত্যা মামলা দায়ের

বিরলে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার ॥ হত্যা মামলা দায়ের

বিরল (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের বিরলে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নির্যাতনের শিকার নিহত গৃহবধূর পিতা বাদী হয়ে বিরল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত শেষে পিতার নিকট লাশ হস্তান্তর করেছে।

জানা গেছে, বিরল উপজেলার পলাশবাড়ী ইউপি’র ধূলাতৈড় শিংপাড়া গ্রামের মৃত রহিম উদ্দীনের পুত্র রেজাউল ইসলাম (৩৫) এর প্রায় এক যুগ আগে বিবাহ হয় পার্শ্ববর্তী বড়বৈদ্যনাথপুর গ্রামের বাদল চৌকিদারের কন্যা পারভীন আক্তার (৩২) এর সাথে।

দু’জনের দাম্পত্য জীবনে ৩টি সন্তান জন্ম নেয়। এরই মাঝে প্রায় ৮মাস পূর্বে একই এলাকার সিরাজুলের কন্যা শিল্পী আক্তারকে নিয়ে পালিয়ে গিয়ে গোপনে ২য় বিয়ে করে রেজাউল। ১ম স্ত্রীর বিনানূমতিতে ২য় বিয়ের বিষয়টি প্রকাশ পেলে পারভীন ও রেজাউলের মাঝে দাম্পত্য কোন্দল সৃষ্টি হয়।

এক পর্যায়ে গত সোমবার রাতে বাড়ীর দরজা বন্ধ করে স্বামী রেজাউল ও সতীন শিল্পী আক্তার নির্মমভাবে পারভীনকে মারপিটে নির্যাতন করে বাড়ী থেকে বের হতে দেয়নি।

নির্যাতনের মাত্রা দিনে দিনে বৃদ্ধি করায় বুধবার রাতে পারভীন আক্তারের অবস্থা সংকটাপন্ন হয়। প্রতিবেশিরা পারভীন আক্তারের নিকট যেতে চাইলেও বাড়ীতে কাউকে প্রবেশ করতে দেয়নি পাষন্ড স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন।

রাতে সজ্ঞাহীন পারভীন আক্তারকে নিজ শয়ন ঘরের বর্গার সাথে গলায় ওড়না দিয়ে ঝুলিয়ে স্বামী-সতীনসহ শশুড়বাড়ীর লোকজন আত্মগোপনে চলে যায়। পরে বাড়ী থেকে আর কোন শব্দ শুনতে না পাওয়ায় প্রতিবেশিরা অনেকে জড়ো হয়ে বাড়ীর ভিতরে প্রবেশ করে পারভীন আক্তারের ঝুলন্ত লাশ দেখে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সবুরকে সংবাদ দেয়। রাতে ইউপি চেয়ারম্যান থানা পুলিশে সংবাদ দিলে পুলিশ রাতেই লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

বৃহস্পতিবার বিরল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মজিদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নিহতর পিতা বাদল চৌকিদার বাদী হয়ে বিরল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজে ময়না তদন্ত শেষে বিকালে নিহতর পিতা বাদলের নিকট লাশ হস্তান্তর করেছে পুলিশ। সবাই পলাতক থাকায় পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি।